ব্যবসার আইডিয়া

ঘরোয়া ব্যবসা ব্যবসা ছোট ব্যবসা টাকা ছাড়া ব্যবসা ব্যবসার আইডিয়া অনলাইনে ব্যবসা পার্ট টাইম জব বর্তমানে সবচেয়ে লাভজনক ব্যবসা গ্রামে লাভজনক ব্যবসা সাপ্লাই ব্যবসা লস ছাড়া ব্যবসা দৈনিক আয়ের ব্যবসা ছাত্রদের জন্য ব্যবসা কাপড়ের ব্যবসা ব্যবসায় উদ্যোগ

ব্যবসার আইডিয়া

বর্তমানে এখনকার সময় ব্যবসা এমন একটি পেশা হয়ে দাঁড়িয়েছে যেটা সম্মানজনক এবং যার থেকে আপনার উপার্জন অনেক বেশি হয় ।যেহেতু বাংলাদেশে কর্মসংস্থানের জায়গা অনেক কম রয়েছে বেকারত্ব অনেক বেশি সেতু ব্যবসা করে নিজেও আর্থিকভাবে লাভবান হওয়া যায় এবং যারা বেকার রয়েছে তাদেরকে চাকরির জায়গা করে দেওয়া যায় ।যদি আপনি একজন সফল ব্যবসায়ী হতে পারেন তাহলে কিন্তু আপনার সম্মান অনেক বেশি বেড়ে যায় । এবং ইসলামের দিক দিয়ে ব্যবসা হচ্ছে একটি হালাল কাজ ।

এখনকার সময় বাংলাদেশের মধ্যে অনেক পরিমাণে বেকারত্ব রয়েছে এবং বাংলাদেশ কিন্তু গরিব সীমার মধ্যে একটি দেশ হয়েছে দাঁড়িয়েছে । এর মূল একটি কারণ হচ্ছে যুবকদের বেকারত্ব । যে যে চাকরি পাওয়ার সে কিন্তু সেইরকম চাকরি পাচ্ছে না । এখনকার সময়ে কিন্তু একটি চাকরির জন্য যেতে হলে সঠিক পরিমাণে দক্ষতা হলে হয়না আপনার টাকারও কিন্তু প্রয়োজন হয় এ জন্যই মূলত বাংলাদেশ সঠিকভাবে উন্নতির দিকে যেতে পারছে না ।

এইসকল কারণেই কিন্তু এখনকার সময়ে বেকার যুবকদের ব্যবসা করা একান্তই প্রয়োজন এতে করে আরো চার-পাঁচ জনের কর্মস্থল হবে এবং নিজেও অনেক দ্রুত স্বাবলম্বী হতে পারবে । আজকে আমি আপনাদের সাথে কয়েকটি ব্যবসার আইডিয়া নিয়ে আলোচনা করব । আপনি কোন কোন ধরনের ব্যবসা গুলো করতে পারেন খুবই অল্প পুজি নিয়ে এবং খুবই অল্প সময় আপনি যে সকল ব্যবসার আইডিয়া মধ্যে লাভবান হতে পারবেন। কিন্তু ব্যবসা করার জন্য আপনার অবশ্যই কঠোর পরিশ্রম করতে হবে এবং আপনাকে সততা বজায় রাখতে হবে । এতে করে আপনার যেসকল ক্রেতাগণ থাকবে তাদের আপনার কাছ থেকে পণ্য নিয়ে সন্তুষ্ট থাকবে ।

ব্যবসার আইডিয়া সমূহ :-

আপনাকে ব্যবসা দেওয়ার জন্য ব্যবসায়িক মনোভাব তৈরি করে নিতে হবে । কঠোর পরিস্থিতির সম্মুখীন করার আপনার মনোবল থাকতে হবে । আপনাকে hard-working করতে হবে ।মনে রাখবেন ব্যবসার আইডিয়া মধ্যে আপনাকে অবশ্যই স্মার্ট ভাবে কাজগুলো করে নিতে হবে ।আপনার ব্যবসার আইডিয়া যেসকল প্রতিদ্বন্দ্বীরা থাকবে তাদেরকে প্রতিনিয়ত ফলো করতে হবে ।আপনার প্রতিদ্বন্দ্বীরা কিভাবে তাদের পণ্য গুলো বিক্রি করে এবং তাদের পণ্য গুলো কোথা থেকে নিয়ে আসে এ সম্পর্কে আপনার কিন্তু ধারণা থাকতে হবে ।

ব্যবসার আইডিয়া

তাহলে চলুন এখন আমরা কিছু ব্যবসার আইডিয়া নিয়ে আলোচনা করি :-

ফ্রিলান্সিং ট্রেইনিং কোচিং :-

আপনি চাইলে কিন্তু একটি ট্রেনিং সেন্টার খুলে নিতে পারেন যেখানে বিভিন্ন পর্যায়ের ছাত্র-ছাত্রীদেরকে আপনি কম্পিউটারের যে সকল কাজ গুলো রয়েছে সেগুলো সম্পর্কে শিক্ষাদান করতে পারেন । গ্রাম অঞ্চল এবং শহর মধ্যে এই ব্যবসাটি অনেক বেশি জমজমাট ভাবে চলতে চাই এখনকার সময় । প্রায় অনেক শিক্ষার্থী রয়েছে যারা নিজেদের পড়ালেখার পাশাপাশি কিছু অর্থ উপার্জন করতে চায় তারাই কিন্তু ফ্রিল্যান্সিং টা শিখে নেয় ।

এর জন্য শুধুমাত্র আপনার একটি অফিসের প্রয়োজন হবে এবং শিক্ষার্থীদের ট্রেনিং দেয়ার জন্য আপনার কিছু কম্পিউটারের প্রয়োজন হবে । এই ব্যবসা দিয়ে কিন্তু আপনি খুব সহজেই স্বাবলম্বী হয়ে যাবেন এবং আপনি অনেক শিক্ষার্থীদের শিক্ষা দিতে পারবেন । এ ব্যবসাটি অনেক সম্মানজনক একটি ব্যবসা । আপনি চাইলে বাইরে থেকে কিছু শিক্ষক নিয়োগ দিয়ে তাদেরকে দিয়ে আপনার ট্রেনিং সেন্টারটি পরিচালনা করতে পারেন ।

উপার্জন ধারণা :-

এইরকম কোচিং সেন্টার দিয়ে আপনি কিন্তু প্রতিমাসে ভালো একটি পরিমাণে অর্থ উপার্জন করতে পারেন। ফ্রিল্যান্সিং কোচিং সেন্টার দিয়ে আপনার অর্থ উপার্জন অনেক গুণ বাড়িয়ে নিতে পারবেন । আপনার যদি সর্বপ্রথম 20 জন স্টুডেন্ট থাকে তাহলে কিন্তু আপনি 20 জনকে ছয় মাসের মধ্যে একটি কোর্স করিয়ে তাদের কাছ থেকে সর্বনিম্ন 2 লাখ টাকা পর্যন্ত উপার্জন করতে পারেন ।

আপনি যদি দুই লাখ টাকা অর্থ উপার্যন করেন এক লাখ টাকা আপনার খরচ এর বেশি আসবে না । এর থেকেও অনেক কম খরচ পরে ।আপনার এমন হিসেবে থাকবে যদি আপনার 20 জন স্টুডেন্ট থাকে তাহলে তারা সেখান থেকে আপনার এক লাখ টাকার থাকবে সম্পন্ন হবে লাভ ।এখানে আপনাকে মার্কেটিং টা একটু ভালোভাবে করতে হবে এতে করে আপনার স্টুডেন্ট তো অনেক বেশি বাড়বে ।

অনলাইন নিউজ পেপার :-

এখনকার সময় ফ্রিল্যান্সিং হচ্ছে এমন একটি পেশা যেটা উন্মুক্ত পেশা । ফ্রিল্যান্সিং এর মধ্যে পড়ে অনলাইন নিউজপেপার ব্যবসাগুলো । আপনার একটি ওয়েবসাইট থাকলেই হয় সেখানে মধ্যে আপনি বিভিন্ন লেখালেখি করে আপনি পোস্ট করতে পারেন এবং সেটাকে এডসেন্সের আপলোড করেও সেখান থেকে অর্থ উপার্জন করতে পারেন ।

দেখা যাবে এমন অনেক সংবাদ রয়েছে যেগুলো আপনি খুব কম সময়ের মধ্যে ক্যাপচার করে নিতে পারবেন । এবং সেই ব্যাপারে আপনি যদি হালকা কিছু বিস্তারিতভাবে লেখালেখি করে আপনার অনলাইন নিউজ যে ওয়েবসাইটে রয়েছে তার মধ্যে পোস্টম্যান তাহলে কিন্তু প্রতিনিয়তই আপনি ভালো পরিমাণের একটি অর্থ উপার্জন করতে পারবেন । এই বিষয়টার জন্য আপনার তেমন কোনো কিছুই প্রয়োজন হবে না শুধুমাত্র একটি কম্পিউটার বা ল্যাপটপ হলে আপনার জন্য অনেক বেশি ভালো হয় আপনি ঘরে বসে করতে পারবেন ।

অর্থ উপার্জন ধারণা :-

এ ধরনের অনলাইন নিউজপেপার ওয়েবসাইট দিয়ে কিন্তু আপনি অনেক ভাবে অর্থ উপার্জন করতে পারেন । সর্বপ্রথম বিভিন্ন এড নেটওয়ার্ক যেগুলো রয়েছে সেগুলোতে মনিটাইজেশন করতে পারেন আপনার ওয়েবসাইটটি । আপনি চাইলে google-adsense দিয়ে আপনার ওয়েবসাইটটি মনিটাইজেশন করে নিতে পারেন । এবং বিভিন্ন ধরনের যেসকল এড নেটওয়ার্ক রয়েছে সেগুলো ব্যবহার করতে পারে ।

এর পাশাপাশি আপনি চাইলে বিভিন্ন কোম্পানি থেকে বিজ্ঞাপন নিয়ে আপনার ওয়েবসাইটের মধ্যে প্রদর্শন করে নিতে পারেন এখান থেকে প্রচুর পরিমাণে একটি লাভের অংশ কিন্তু আসে । আপনি যদি চান তাহলে কিন্তু অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করতে পারেন । বিভিন্ন লোকের পণ্য আপনি বিক্রি করতে পারেন আপনার ওয়েবসাইটের মধ্যে বিভিন্ন আর্টিকেল এর মাঝে আপনি পণ্য ক্রয় করার লিংক দিতে পারেন । যদি সঠিকভাবে আপনি করেন তাহলে দেখা যাবে আপনি দুই লাখ তিন লাখ টাকা অর্থ উপার্জন করা কোন ব্যাপারই না ।

পোলট্রি ফার্ম :-

এখনকার সময় পোল্ট্রি ফার্ম একটি ভাল ব্যবসা । প্রতিনিয়তই কিন্তু আমাদের মুরগির প্রয়োজন হয় । দৈনন্দিন প্রয়োজনীয় গুলোর ভিতরে খাবার একটি প্রয়োজনীয় জিনিস শেখাবার এ আমাদের হচ্ছে মুরগি । বাজার এখনো দেখবেন মুরগির দাম কিন্তু অনেক বেশি । আপনি চাইলেই কিন্তু মুরগির ব্যবসা দিয়ে দিতে পারেন । আপনি যদি গ্রামাঞ্চলে হন তাহলে একটি খামার তৈরী করে নিতে পারেন এবং সেখানে মুরগির বাচ্চা তুলে সম্পূর্ণভাবে বড় করে সেগুলো বিক্রি করে ভালো পরিমাণে অর্থ উপার্জন করতে পারেন ।

আপনাকে অবশ্যই ভাল একটি জায়গা নির্বাচন করে নিতে হবে এবং আপনার পরামর্শদাতা হিসেবে পশু অফিসে যে সকল কর্মীরা রয়েছে তাদেরকে দিয়ে পরামর্শ নিতে পারেন । তাই আপনি যদি সব কিছুই সঠিকভাবে বলেন তাহলে তারা অবশ্যই আপনাকে সাহায্য করবে । এ কারণেই মূলত চেষ্টা করবেন সবার কাছ থেকে একটু একটু করে সাহায্য নেওয়া যায় । যদি আপনার একার দ্বারা করতে সমস্যা হয় তাহলে আপনি চেষ্টা করবেন আর 2- 4 জন লোক নিয়ে আপনার কাজগুলো সম্পন্ন করার ।এতে করে আরো অনেক লোকের কর্মসংস্থান হবে এবং আপনিও আপনার ব্যবসাটি স্বাচ্ছন্দে ভাবে চালিয়ে যেতে পারবেন ।

অর্থ উপার্জনের ধারনা :-

আপনি যদি ভালোভাবে এবং আপনি যদি সফলভাবে মুরগিগুলো লালন-পালন করতে পারেন দায়িত্ব সহকারে তাহলে কিন্তু আপনি প্রত্যেক মাসেই ভালো একটি পরিমাণে অর্থ উপার্জন করতে পারবেন । দেখা যাবে আপনি যে সকল কাজগুলো করছেন সেগুলো খরচ বাদ দিয়ে এবং আপনার যে সকল কর্মী গুলো রয়েছে সেগুলো খরচ বাদ দিয়ে আপনার কাছে মোটামুটি ভালো পরিমাণে একটি অর্থ থেকে যাবে ।

আপনি যত বেশি মুরগি পালন করবেন তত বেশি আপনার লাভ হবে । কিন্তু অবশ্যই একটা কথা মাথায় রাখবেন ব্যবসার আইডিয়া মধ্যে লাভ লস 2 বিষয় রয়েছে । তাই সবদিক বিবেচনা করে আপনাকে নামতে হবে বেশি লাভ হবে লাভ হলে আর যদি আপনার লস হয় তাহলে কিন্তু বেশি লস হবে । তাই আপনার খামারকে পর্যাপ্ত পরিমাণে চোখে চোখে রাখা দরকার । পরিচর্চা ভালোভাবে আপনাকে করতে হবে ।

মৎস চাষ ও হাঁস পালন :-

গ্রাম্য দিক দিয়ে অনেকে রয়েছে যারা মাছ আলাদা চাষ করে এবং হাঁস আলাদা পালন করে । আপনি চাইলেই কিন্তু মৎস চাষ ও হাঁস পালন একই সাথে করতে পারেন । হাঁসের যে সকল ময়লা রয়েছে সেগুলো আপনি যদি মাছের খাবার হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন তাহলে কিন্তু মাছের যেসকল খাদ্যের প্রয়োজন সেগুলো আপনি দিতে হবে না । অনেক কম খরচে কিন্তু আপনার মাছ চাষ হয়ে যাবে । এই কারণেই মূলত আমি বলেছি মৎস চাষ ও হাঁস পালন একই সাথে করার জন্য ।

এই ব্যবসাটি করার জন্য আপনার কিন্তু বেশি পরিমাণ এর অর্থের প্রয়োজন হবে না। আপনি গ্রাম্য এলাকার মধ্যে ছোটখাটো ভাবে একটি প্রথমত এক্সপেরিমেন্ট হিসেবে শুরু করতে পারেন । পরবর্তীতে যদি দেখেন না এটাতে আপনার অনেক বেশি লাভবান হতে পারবেন তখনই কিন্তু আপনি বড় একটি খামার দিয়ে দিতে পারেন । এবং আপনার কাজ করার জন্য কিছু লোকজন রেখে দিলেন এতে করে তাদের কর্মস্থলে হবে আপনার কাজগুলো খুব দ্রুত শেষ হয়ে যাবে । আপনার হাঁসের পরিচর্চা ও মাছের পরিচর্যা সঠিকভাবে হবে ।

অর্থোপার্জনে ধারণা :-

এ ব্যবসাটি করে আপনি কিন্তু ভালো পরিমাণে একটি অর্থ উপার্জন করতে পারেন । আপনি যদি এসকল জায়গাতে 100000 টাকা ইনভেস্ট করেন তাহলে কিন্তু দেখা যাবে শেষ পর্যন্ত আপনি রেভিনিউ হিসেবে দুই লাখ টাকা পর্যন্ত পেতে পারেন । এ কারণে অবশ্যই চেষ্টা করবেন সঠিকভাবে পরিচর্যা করার । কাজ গুলো কঠোরভাবে আপনি করার ।

ইভেন্ট ম্যানেজার :-

ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট এই কাজটি অনেক মজার একটি কাজ এটি হচ্ছে বিভিন্ন অনুষ্ঠানের মধ্যে আপনি ইভেন্ট করবেন । সেসকল অনুষ্ঠানগুলো পরিচালনা করবেন আপনার কাছে সেগুলো পরিচালনা করার জন্য ওয়ার্ডার আসবে । সুন্দর ভাবে সেই অনুষ্ঠানটি সাজাবেন এবং সুন্দরভাবে সেই অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করবেন যাতে করে আপনার ক্লায়েন্ট যিনি থাকবে সে খুব খুশি হয় । এবং এসকল ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট এর কাজ গুলো থেকে কিন্তু অনেক পরিমাণে অর্থ উপার্জন করা যায় । এবং এর মার্কেটিং করার প্রয়োজন হয় না ।

আপনি কিন্তু চাইলে সম্পন্ন বিনা অর্থ এই ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট এর কাজ গুলো করতে পারেন । আপনি সর্বপ্রথম যে সকল ডেকারেশন বা যে সকল ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট গুলো রয়েছে তাদের সাথে প্রথমে আপনি কথা বলে নিতে পারেন । এবং পরবর্তীতে আপনাকে কাস্টমার খোঁজার জন্য একটু কষ্ট হবে। কিন্তু আপনি যে একবার কাস্টমার পেয়ে যান সেই কাজ যদি যথাযথভাবে আপনি সম্পন্ন করতে পারে। তাহলে কিন্তু আপনার পরবর্তী কাস্টমার খোঁজার প্রয়োজন হবেনা কাস্টমার গুলো আপনার কাছে এমনিতেই চলে আসবে ।

অর্থ উপার্জন :-

আপনি এখানে অনেক কম ইনভেস্টে কিন্তু কাজ করতে পারবেন আপনার সর্বপ্রথম যদি প্রয়োজন হয় তাহলে আপনার 100000 টাকার প্রয়োজন হতে পারে । অথবা আপনি বিনা অর্থেও কাজগুলো করতে পারেন । আপনি যদি ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট গুলোর কাজগুলো করতে পারেন প্রতিটি ইভেন্ট থেকে আপনি কিন্তু সর্বনিম্ন 50 হাজার টাকা করে পাবেন ।

আপনার যে সকল কর্মী গুলো থাকবে তাদের সাথে ভালো ব্যবহার করবেন এবং আপনার কাস্টমার যে থাকবে তার সাথে আপনার ভালো ব্যবহার করতে হবে । এবং তাকে বলতে হবে অন্য লোকদের যাতে সেই বলে যে আপনার কাজটি আমি করেছি । আপনি যদি ভাল একটি অফিস নেন তাহলে কিন্তু আপনার উপার্জন আরো অনেকগুণ বেড়ে যাবে ।

আর্টিকেল ভিত্তিক মন্তব্য :-

আমি আপনাদেরকে কয়েকটি ব্যাবসার কথা বলেছি আপনারা চাইলে সাথে এই সকল ব্যবসাগুলো করে নিতে পারেন । ঠিক একই প্রশ্ন আপনি ব্যবসাগুলো করবেন সর্বপ্রথম আপনার ব্যবসা সম্পর্কে জানতে হবে । পণ্য সম্পর্কে আপনাকে জানতে হবে । আপনার কাস্টমারদের সম্পর্কে আপনার জান । কোন জায়গাতে আপনি ব্যবসা করবেন সেটা আপনাকে জানতে হবে । তাহলে কিন্তু আপনি খুব সহজেই ব্যবসা প্রতিষ্ঠানগুলো দিয়ে দিতে পারেন ।

 

  • খাবার ডেলিভারি
  • টিউশন মিডিয়া এজেন্সি
  • ফটোগ্রাফি
  • কোচিং ব্যবসা
  • খেলনার শপ
  • ট্যুরিজম ব্যবসা
  • ব্যবহৃত পণ্য। কেনা এবং বেচা।
  • ছোট কফি শপ
  • ডেলিভারি কোম্পানি

আমাদের শেষ কথা :-

আমরা আপনাদেরকে কিছু ব্যবসার আইডিয়া দিয়েছি আপনারা চাইলে এসকল ব্যবসার আইডিয়া গুলো কাজে লাগিয়ে আপনাদের প্রথম ব্যবসা গুলো শুরু করতে পারেন । এসকল ব্যবসাগুলো করতে তেমন বেশি অর্থের প্রয়োজন হয় না তাই চেষ্টা করবেন কম খরচে ভিতরে ব্যবসা গুলো শুরু করা । অদে আর্টিকেলটি সম্পন্ন করার জন্য আপনাদেরকে অনেক অনেক ধন্যবাদ । আপনাদের যদি কোন প্রশ্ন থাকে তাহলে অবশ্যই আমাদেরকে করতে পারেন আমরা সেই প্রশ্ন নিয়ে আপনাদের সাথে বিস্তারিত আলোচনা কর ।

আজকের জন্য এখানেই বিদায় নিলাম । আবার অন্য কোনদিন অন্য কোনভাবে আপনাদের সামনে হাজির হবো ইনশাআল্লাহ । আল্লাহ হাফেজ ।

 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *